1. masudkhan89@yahoo.com : admin :
  2. narsingdirawaaz1@gmail.com : Narsingdir Awaaz : Narsingdir Awaaz

মাঘী পূর্ণিমা তিথিতে নরসিংদীতে ঐতিহ্যবাহী বাউল মেলা

  • আপডেট সময়: রবিবার, ৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩
  • ৯৬ জন দেখেছেন

সুমন পালঃ মেঘনা নদীর তীরঘেঁষে নরসিংদীর প্রাচীন শ্রী শ্রী বাউল ঠাকুরের আখড়া ধাম। বাউল সম্প্রদায়ের নিয়ম অনুযায়ী প্রায় ৭শ বছর ধরে মাঘী পূর্ণিমা তিথিতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে বাউল মেলা। শনিবার থেকে শুরু হওয়া মেলা চলবে আগামী শুক্রবার পর্যন্ত। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আগত ভক্তদের উপস্থিতিতে বাউল ঠাকুরের আখড়া পরিণত হয় ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকল ধর্মাবলম্বীদের মিলনমেলায়। আত্মশুদ্ধি আর আত্মমুক্তির জন্য মেলা থেকে বাউলরা তুলে ধরছেন মানব প্রেমের গান।বাউল ঠাকুরের আখড়াবাড়ি সূত্রে জানা গেছে, প্রতিবছরই মাঘী পূর্ণিমার দিনে শ্রী চৈতন্য দেবের জন্মতিথি উপলক্ষে এই মহাযজ্ঞের আয়োজন করা হয়। প্রায় ৭শ বছরের ঐতিহ্যবাহী এই মেলাকে ঘিরে নরসিংদীর কাউরিয়া পাড়া এলাকার মেঘনা নদীর তীরে সমাগম ঘটে হাজারো নারী-পুরুষের। নদীতে চলে পূণ্যস্নান। পাশেই রয়েছে বাউল ঠাকুরের আখড়া। যেখানে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বাউল কণ্ঠসাধকরা এসে বসিয়েছে বাউল গানের আসর। ভক্তরা সারিবেঁধে মহাযজ্ঞানুষ্ঠানে ঘি-প্রদীপ, মোমবাতি ও আগরবাতি জ্বালিয়ে পূজা দিচ্ছে আর প্রার্থনা করছে পরিবার ও দেশের সকল মানুষের কল্যাণসহ যতধরনের অশুভ শক্তি থেকে নিষ্কৃতি পেতে। আজ রবিবার দুপুরে বাউল ঠাকুরের আখড়াবাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বাউল সাধকরা দলবেঁধে মেলায় যোগ দিয়েছে। আখড়ায় থাকা আটচালা বৈঠকঘরে চলছে মুন্সীগঞ্জ, ময়মনসিংহ, কুমিল্লা, গাজীপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা কয়েক শ বাউলের বৈঠক। বাউল সাধকরা এ আসরে বাউল গান গুনিয়েছেন। আত্মশুদ্ধি আর আত্মমুক্তির জন্য এ মেলায় আসেন তারা এবং তুলে ধরেন মানবপ্রেমের গান। বাউল মেলা উপলক্ষে দেশের নানা প্রান্ত থেকে ব্যবসায়ীরা বাঙালির চিরচেনা মুখরোচক খাবার ও বাহারি পণ্য নিয়ে হাজির হয়েছেন। এসব খাবারের মধ্যে রয়েছে আমিত্তি, জিলাপি, সন্দেশ, বারো মিঠাই, দই, মুড়ালি, গুড়ের তৈরি মুড়ি ও চিড়ার মোয়া, তিলের মোয়া, তিলের সন্দেশ, কদমা, নারকেলের নাড়ু, তিলের নাড়ু, খাজা, গজা, নিমকি, মনাক্কা, গাজরের হালুয়া, পিঠাসহ রকমারি খাবার। এ ছাড়া খেলনা, তৈজসপত্র, আসবাবপত্র, বিভিন্ন ধরনের তৈরি পোশাক, মাটি ও বাঁশের তৈরি জিনিসপত্রসহ নানা ধরনের পণ্যের স্টল নিয়ে বসেছেন। আগামী বুধবার ঠাকুরের মহাপ্রসাদ বিতরণ করা হবে।
##

সামাজিক যোগাযোগ এ শেয়ার করুন

একই বিভাগের আরও সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২১ নরসিংদীর আওয়াজ
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট @ ইজি আইটি সল্যুশন