1. masudkhan89@yahoo.com : admin :
  2. narsingdirawaaz1@gmail.com : Narsingdir Awaaz : Narsingdir Awaaz
শিরোনাম : :
বই মেলায় ‘ গোয়েন্দা নানু ও মজার গল্প ‘ আর ‘ সোনামনিদের মজার গল্প ‘ শিশুতোষবই দুটির বাজিমাত: নরসিংদী পিবিআই কর্তৃক অজ্ঞাতনামা লাশের পরিচয় সনাক্ত। সদর উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তার মাতৃ বিয়োগ মাধবদীতে ১৩ কেজি গাজাসহ আটক-১ মাধবদীতে যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মার্তৃভাষা দিবস পালিত অমর একুশে বই মেলা উপলক্ষে সাংবাদিকদের সাথে মত বিনিময় করেছেন জেলা প্রশাসন ভারতে কারাতে প্রতিযোগিতায় নরসিংদীর কৃতিত্ব ভগীরথপুর হাজী লাল মিয়া মোল্লা উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত নরসিংদী জেলার জন্ম ইতিহাস নরসিংদীতে র‌্যাবের তিন সদস্যকে কুপিয়ে আহত করে আসামী ছিনতাই

মাধবদীর পাথরপাড়ায় ভূমিখেকো রাশিদার ভয়ে প্রকৃত মালিক হয়েও পৈত্রিক ভিটায় যেতে পারছেননা ভিটে মালিক

  • আপডেট সময়: রবিবার, ২১ মে, ২০২৩
  • ১৯ জন দেখেছেন

 

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ মাধবদীর পাথরপাড়ায় প্রকৃত মালিক হয়েও পৈত্রিক ভিটায় যেতে পারছেনা ভিটে মালিক বোরহান ও তার পরিবার। সেখানে গেলেই শিকার হচ্ছে হামলা-মামলার। এমনটাই অভিযোগ করেন মাধবদী থানার পাথর পাড়া গ্রামের বোরহানউদ্দীন। ভুক্তভোগী বোরহান জানায় তিনি দির্ঘ দিন সিঙ্গাপুরে প্রবাস জীবন অতিবাহিত করেন তিনি। এসময় তার জমিজমা দেখাশুনা করত তান চাচা আলমাছ। দেশে ফিরে আসার পর আলমাছ জানান আরএস রেকর্ডে ভূল হয়েছে । এজন্য একটি না দাবি দলিলের প্রয়োজন । বোরহান চাচার কথায় বিশ্বাস করে একটি না দাবি দলিল করে দেয়। পরবর্তীতে বোরহান জানতে পারেন আলমাছের পিতা আঞ্জত আলী ১৯৫১ সালে সাফ কবলা দলিল মূলে একই এলাকার ফিরুজ মিয়ার নিকট ৩১ শতাংশ জমি বিক্রী করে বিষয়টি গোপন করে রাখে। যার কারনে আর এস রেকর্ডে আলমছের নামে জমির পরিমান কম রেকর্ড হয়। আলমাছ ছলনার আশ্রয় নিয়ে বোরহানের নিকট থেকে না দাবি দলিল নিয়ে নামজারী জমা জমা ভাগ সম্পন্ন করে। অপর দিকে বোরহান প্রথমে সামাজিক ভাবে বিষয় নিস্পত্তির চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে আইনের আশ্রয় গ্রহন করেন। না দাবি দলিল বাতিল ও নামজারী জমা ভাগ মোকদ্দমা নং ৬১১২ বাতিলের আবেদন করলে সহকাকারী কমিসনার (ভুমি) নরসিংদী ৬১১২ নামজারী জমা ভাগ বাতিল পূর্বক বোরহানউদ্দীন ও তার স্ত্রী ফাতেমা বেগমের নামে নামজারী করে দেন যার মোকদ্দমা নং ১২০১০/ ২২/২৩। বোরহান ও তার স্ত্রী ফাতেমার অভিযোগ তারা তাদের শত বছরের দখলীয় পৈত্রিক ভিটায় গেলে হামলার শিকার হয়ে নাজেহাল হতে হয়। বোহানের দাবী রাশিদা ও হাবিবুল্লা তার নিকট দশ লাখ টাকা দাবি করে আসছে। তাদের দাবি পুরন করলে তারা আর কোন ধরনের বাধার সৃষ্টি করবেনা। গত ১৭ মে বিকেলে বোরহান ও তার পরিবারের লোকেরা গাছ থেকে আম আনতে গেলে রাশিদা, মজিবুর, হাবিবুল্লা, রাশেল, তারেক, জাকির, ফাতেমাসহ ৯/১০ জন বোরহান ও তার কলেজ পড়ুয়া ছেলের উপর হামলা করে এবং মারপিট করে গাছের আম ছিনিয়ে নেয়। এব্যপারে সরেজমিনে গিয়ে কথা হয় রাশিদা বেগমের সাথে। রাশিদা বোরহানের অভিযোগ আংশিক অস্বিকার করে বলেন তারা আম পাড়তে বাধা দিলেও মারপিট করে নাই। দখলের বিষয় জানতে চাইলে তিনি জানান ভিটাবাড়ি বোরহানের ছিল বর্তমানে দলিল মূলে আমরা মালিক। আর এ ব্যাপারে আদালতে মামলা চলছে। আদালতের মাধ্যমেই বোরহানের সাথে মোকাবেলা হবে বলেও জানান তিনি। বেরহানউদ্দীন ও ফাতেমা বেগমের প্রাপ্ত নামজারী সম্পর্কে জানতে চাইলে রাশিদা জানান এ ব্যপারে তিনি কিছুই জানেন না। আশপাশের লোক জনদের কাছে জানতে চাইলে তারা জানান এ জমি শত বছর পূর্ব থেকে বোরহানের পূর্ব পুরুষগন ভোগ দখল করে আসছে। তবে বেশকিছু দিন ধরে রাশিদা এ জমির মালিকানা দাবি করে এবং তারা এখানে আসলেই রাশিদা তাদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে ও লোকজন নিয়ে তাড়া করে।
এবিষয়ে একটি শান্তিপূর্ণ সমাধান আশা করেন এলাকাবাসী।

সামাজিক যোগাযোগ এ শেয়ার করুন

একই বিভাগের আরও সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২১ নরসিংদীর আওয়াজ
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট @ ইজি আইটি সল্যুশন